কেন ইস্তফা দিলেন বিপ্লব দেব? বেড়িয়ে আসলো আসল কারণ


বড়সড় উলোট পুরাণ গেরিয়া শিবিরে। মেয়েদের আগেই ইস্তফা দিলেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। পদত্যাগ পত্র তিনি পাঠিয়ে দিয়েছেন রাজ্যপালের কাছে। পদত্যাগের কারণ হিসেবে সেরকম কোন নির্দিষ্ট কারণ জানাননি বিপ্লব দেব। এক লাইনে শুধু নিজের পদত্যাগের কথা লিখে দিয়েছেন।

- Advertisement -

প্রথমবারের জন্য ত্রিপুরায় ক্ষমতায় এসেছিল বিজেপি। সম্পূর্ন নতুন মুখকে মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসিয়েছিল গেরুয়া শিবির কিন্তু তাতেও মুখ রক্ষা হলনা। তবে মনে করা হচ্ছে কেন্দ্রীয় নেতাদের চাপেই এমন সিধান্ত নিয়েছেন বিপ্লব দেব।

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে নাকি বহুদিন ধরেই জমা পড়েছিল অভিযোগ। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের মুখে পড়েই নাকি এমন চরম সিধান্ত নিয়েছেন বিপ্লব বাবু। তবে এমনটা যে হতে চলেছে তা দলের অন্দরে অনেকেই নাকি আগে থেকে জানতেন। ২০২৩ এর ভোটের আগেই নাকি নিজেদের ভাবমূর্তি পরিষ্কার করতে চায় বিজেপি এটিকেই মুখ্য কারণ হিসেবে মনে করা হচ্ছে।

ইস্তফা দেওয়ার পর বিপ্লব দেব জানিয়েছেন, ‘দল চাইছে ২০২৩ নির্বাচনের আগে সংগঠনের শক্তি বাড়াতে। দীর্ঘ সময় সরকারে থাকার জন্য সংগঠনের শক্তি বাড়ানোর দরকার। সংগঠন থাকলে তবেই সরকার থাকবে। তাই দল আমাকে সংগঠনে কাজে লাগাতে চাইছে।’

এখনও অবধি বিপ্লব দেব জানিয়েছেন তিনি আগামী দিনেও বিজেপিতে থেকেই কাজ করবেন। কোনরকম বিপরীত মন্তব্য এখনও করেননি তিনি। ‘এতদিন প্রধানমন্ত্রীর মার্গদর্শনে আমি কাজ করে এসেছি। আমি ত্রিপুরায় ন্যায় প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করেছি। এবার কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের ইচ্ছাতেই সংগঠনের কাজ করব।’

আরোও পড়ুন :