ভেবেছিলেন জল ঢুকেছে,কিন্তু কানে ঢুকে বসেছিল আস্ত আরশোলা! বিস্মিত চিকিৎসকরা

36
- Advertisement -

আরশোলা
সাঁতার কাটতে গিয়েছিলেন তিনি।আর তারপর থেকেই শুরু হয়েছে কানের মধ্যে প্রচন্ড অস্বস্তি।ওই ভদ্রলোক ভেবেছিলেন,তার কানে জল ঢুকেছে দু একদিনের মধ্যেই সেরে যাবে।কিন্তু এই অস্বস্তি যে জল থেকে নয়, হচ্ছে আরশোলা থেকে তা তিনি হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি।কানের ভিতর আরশোলা টি ঢুকে দিব্বি জ্যান্ত অবস্থাতেই বসে ছিল তা জানার কথাও নয় তার।

- Advertisement -

এমনই ঘটনা ঘটেছে নিউজিল্যান্ডের বাসিন্দা জেন ওয়েডিং এর সাথে।তিনি আগে অবসশ্য আরশোলা দেখে ভয় পেতেন না,কিন্তু এই ঘটনার পর থেকে আরশোলা তার কাছে ভয়ানক পতঙ্গ হয়ে উঠেছে।কি করে কানের মধ্যে পতঙ্গ টি ঢুকে গিয়েছিল তা তিনি জানতেন না।কানের ভিতর অস্ব্স্তি হতে প্রথমে এক চিকিৎসকের কাছে যান তিনি।সাঁতার কাটার কথা তিনি যেহেতু চিকিৎসককে বলেছিলেন তাই তিনিও ভেবেছিলেন কানে হয়তো জল ঢুকেছে।সেই মতো ওষুধ পত্রও দেন তিনি।কিন্তু এতে কোনও সুরাহা হয় না তার কানের।

জেন ওয়েডিং এরপর এক নতুন জিনিস খেয়াল করলেন।তিনি অনুভব করলেন কানের ভিতর কিছু একটা থেকে থেকেই নড়া চড়া করছে।ভয়ে তিনি এবার অন্য এক চিকিৎসকের কাছে যান।এই চিকিৎসকও প্রথমে বিষয়টি বুঝে উঠতে পারেননি।তিনি প্রথমে ভেবেছিলে মিঃ ওয়েডিং এর কানে হয়তো টিউমার হয়েছে।সেইমতো পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে গিয়ে তিনি বুঝতে পারেন টিউমার নয় কানে ঢুকে বসে আছে কোনও পতঙ্গ।

এরপর ক্লিনিকে কানের ভিতর থেকে পতঙ্গটি বের করা উদ্যোগ নেওয়া হয়।একটু পরেই পুরো বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যায় সকলের কাছে।দেখা যায় ওই ব্যক্তির কানে ঢুকে বসেছিল এক আরশোলা।এমনকি তা জীবন্ত অবস্থায় ছিল।এই ঘটনা দেখে রীতিমতো বিস্মিত চিকিৎসকেরা।আঁতকে ওঠেন মিঃ ওয়েডিংও।

আরোও পড়ুন :