ধুন্ধুমার ত্রিপুরায়! গ্রেফতার জননেত্রী সায়নী ঘোষ

সায়নী ঘোষ
একুশের বিধানসভা ভোটে জয়লাভ করার পর থেকেই মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মূল নিশানা ত্রিপুরা। বিপ্লব দেবের সরকারকে সরিয়ে ত্রিপুরায় সুশাসন প্রতিষ্ঠা করাই তাদের মূল উদ্দেশ্য। কিন্তু কাজটা অত সহজ হবেনা তা টের পাওয়া যাচ্ছে এখন থেকেই। আজ সকাল থেকেই তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষকে হিট অ্যান্ড রানের অভিযোগে ত্রিপুরার এক থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করছিল পুলিশ।

- Advertisement -

এরপরেই সেখানে বিজেপি কর্মীরা লাঠি এবং হেলমেট পড়ে থানা ঘেরাও করে বলে অভিযোগ তৃণমূলের তরফে। অন্যদিকে বিজেপির অভিযোগ এদের সাথে তাদের কোনো যোগাযোগ নেই, সায়নীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে তৃণমূল কর্মীরাই থানায় ঘেরাও করেছে। এরপর তুমুল অশান্তি হয় থানার সামনেই এবং অবশেষে গ্রেফতার করা হয় সায়নী ঘোষকে। ৩০৭, ১৫৩ এবং ১২০ বি ধারায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

তৃণমূল নেতা সুবল ভৌমিকের দাবি, ‘‘পুলিশকে কাজে লাগিয়ে এ ভাবে তৃণমূলের পথরোধ করার চেষ্টা করছে বিজেপি। নেতা কর্মীদের উপর ইটবৃষ্টি চলছে, পুলিশ নীরব দর্শক। তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক তথা মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘‘ত্রিপুরায় জঙ্গলের রাজত্ব চলছে। থানায় ডেকে এনে মেরে ফেলার পরিকল্পনা ছিল।’’

আরোও পড়ুন :