পেট্রোল ৭৫ টাকা,ডিজেল ৬৮ টাকা! শুক্রবার ই সিদ্ধান্ত ঘোষনা

163
- Advertisement -

পেট্রোল-ডিজেল
পেট্রোল ডিজেলের মূল্য দিন দিন বেড়েই চলেছে।এর জেরে দাম বাড়ছে সাধারন মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রবাদির ও।এর ফলে দেশের অর্থনীতিতে এক ক্ষতিকর প্রভাব পড়ছে।সাধারন মানুষের দূর্দশা দেখা দিচ্ছে।এই সমস্ত পরিস্থিতি হয়ে যাতে পারে ঠিক ঠাক। বিশেষজ্ঞ রা জানাচ্ছেন পেট্রোল-ডিজেল এর জিএসটি আওতাভুক্ত করা গেলে ১০১ টাকার পেট্রোল মিলতে পারে ৭৫ টাকায় এবং ডিজেল মিলতে পারে ৬৮ টাকায়।এই পুরো বিষয়টিই এখন নির্ভর করছে শুক্রবারে অনুষ্ঠিত জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠকের উপর।একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে পেট্রোল-ডিজেল জিএসটির আওতায় আসুক তা বর্তমানে দেশের ৭৭ % মানুষ ই চাইছে।

- Advertisement -

পেট্রোল-ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধির অন্যতম কারন হল কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বসানো মোটা অঙ্কের কর।কেন্দ্র সরকার এই মুহুর্তে লিটার প্রতি পেট্রোল এ ৩২ শতাংশ কর বসায় ও রাজ্য বসায় ২৩ শতাংশ কর।আবার ডিজেলের উপর কেন্দ্র সরকার বসায় ৩৫ শতাংশ কর ও রাজ্য বসায় ২৩ শতাংশ কর।দেখা যাচ্ছে কেন্দ্র-রাজ্য মিলিয়ে পেট্রোলের উপর সর্বমোট ৫৫ শতাংশ ও ডিজেলের ওপর প্রায় ৫০ শতাংশ কর বসানো হয়।জিএসটি চালু হলে খুব বেশি হলে এর উপর ২৮ শতাংশ কর বসতে পারে বলে জানা যাচ্ছে,এর ফলে পেট্রোল পাওয়া যেতে পারে ৭৫ টাকা লিটারে ও ডিজেল পাওয়া যেতে পারে ৬৮ টাকা প্রতি লিটার হিসাবে।

পেট্রোল-ডিজেল কে জিএসটি আওতাভুক্ত করা যায় কিনা তা নিয়ে শুক্রবারই জিএসটি কাউন্সিল বৈঠকে বসছে।প্রসঙ্গত দিন কয়েক আগে কেন্দ্রের পেট্রোলিয়াম দপ্তরের প্রাক্তন মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান এবং অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ একপ্রকার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে এবার পেট্রল-ডিজেলকে জিএসটির আওতায় আনতে পারে কেন্দ্র সরকার।

অর্থমন্ত্রী ও প্রাক্তন পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী চাইলেও পেট্রোল-ডিজেল কে জিএসটি ভুক্ত করার ক্ষেত্রে শেষ সিদ্ধান্ত নেবে জিএসটি কাউন্সিল।এই কাউন্সিলে কেন্দ্রের পাশাপাশি রাজ্য গুলির থেকেও প্রতিনিধিরা আছেন।মনে করা হচ্ছে এক্ষেত্রে বাধা হতে পারে রাজ্যগুলি, কারন পেট্রোপন্য থেকে এক মোটা অঙ্কের কর পায় কেন্দ্র।এরপর জিএসটি চালু হলে সেক্ষেত্রে রাজ্যের লভ্যাংশ আরও অনেক কমে যাবে।জানা গিয়েছে পেট্রোপন্য কে জিএসটি ভুক্ত করতে হলে জিএসটি কাউন্সিলের তিন-চতুর্থাংশের অনুমোদন প্র‍য়োজন। এই অনুমোদন গ্রাহ্য হলেই পেট্রোপন্যে চালু হতে পারে জিএসটি।

আরোও পড়ুন :