পঞ্চমবার বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন পরীমনি, শুভেচ্ছায় ভরলো সোশ্যাল মিডিয়া


বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনি এপার বাংলাতেও বিশেষ জনপ্রিয়। তবে বিগত বছর থেকেই তিনি তার অভিনয়ের বাইরে বেরিয়ে বিভিন্ন বিতর্কের মাধ্যমেই উঠে এসেছেন সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে খবরের শিরোনামে। কখনো তাকে ধর্ষণের অভিযোগ আবার কখনো মাদক কাণ্ডে জড়িয়ে রীতিমতো আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ধারা বজায় রেখে নতুন বছরেও আরো একবার আলোচনায় উঠে এলো তার নাম। এবার আর কোন বিতর্ক বা অভিনয়ের কারনে নয় বরং আচমকাই নিজের পঞ্চম বিয়ের কারনে উঠে এলেন চর্চায়।

- Advertisement -

খুব বেশী দিনের অভিনয় জীবন না হলেও অল্পদিনের মধ্যেই অভিনয় বা নানা বিতর্কিত কর্মকান্ডে দর্শকদের কাছে পরিচিতি পেয়েছিলেন পরীমনি। তবে এর আগেও চার বার বিবাহ সম্পন্ন করেন তিনি। যদিও তার জীবনের নানা বিতর্কিত ঘটনার প্রভাব পড়ে তার বিবাহিত জীবনেও। এর ফলস্বরূপ প্রতি বারই বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে তার। তবে নতুন বছরের শুরুতেই ভক্তদের জন্য সুখবর জানান তিনি। ১০ ই জানুয়ারি তিনি ঘোষণা করেন যে তিনি সন্তান সম্ভবা। কিন্তু তার পরেই সম্প্রতি অভিনেতা শরিফুল রাজের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন তিনি।

কাউকে কিছু না জানিয়েই আচমকাই অভিনেতার সাথে পরীমনির বিবাহ অনুষ্ঠানে অবাক হয়েছেন অনেকেই। এমনকি যাক জমকপূর্ন অনুষ্ঠান করতেও দেখা যায়নি এবার। সম্পুর্ন ঘরোয়া ভাবে অল্প সদস্য নিয়েই তিনি সম্পন্ন করলেন তার বিবাহ অনুষ্ঠান।যেখানে চলচ্চিত্র জগতের অন্যান্য ব্যক্তিদের ও বিশেষ দেখা যায়নি। জানা গেছে অভিনেতা রাজের সাথে তার বিবাহ সম্পন্ন হয়েছিল গত বছরই। গোপনে ১৭ ই অক্টোবর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। অবশেষে এদিন সকলকে জানিয়ে সেই বিয়ের অনুষ্ঠানই করলেন তিনি।

ইতিমধ্যেই রাজের সাথে তার সম্পর্ক নিয়েও মুখ খুলেছেন পরীমনি। তিনি জানান রাজের সাথে তার প্রথমবার কথা হয় শ্যুটিং ফ্লোরেই। সেই ছবি টি ছিলো ‘গুনীন’। যদিও সেই সম্পর্ক যে খুব বেশিদিনের এমনটা নয় বরং বলা ভালো খুবই অল্প সময়ের। পরীমনি জানান মাত্র ৫ দিনের মধ্যেই তারা বিবাহের সিদ্ধান্ত নেন। এবং সেই সিদ্ধান্তে তারা খুশীও। তিনি জানিয়েছেন রাজ, রাজের পরিবার ও পরীমনি নিজেও তার আগত সন্তানের জন্য প্রচন্ড খুশী। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের বিবাহ অনুষ্ঠানের ছবিও দিয়েছেন পরীমনি। যেখানে তার পঞ্চম বিবাহের জন্য শুভেচ্ছাবার্তায় ভরিয়ে দিয়েছেন তার অনুগামীরা।

আরোও পড়ুন :