৪৮ ঘন্টার মধ্যে ফের তলব ইডির,বিপাকে অভিষেক

39
- Advertisement -

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়
কয়লা কেলেঙ্কারি মামলায় ইডি তলব করেছে তৃনমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও তার স্ত্রী রুজিরা কে।ইতিমধ্যেই দিল্লী পৌঁছেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তার স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় যদিও ইডিকে একটি চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছে করোনা পরিস্থিতিতে এত কম সময়ের মধ্যে ইডির ডাকে তার দিল্লী পৌঁছোনো সম্ভব না।

- Advertisement -

দিল্লী যাওয়ার আগে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন অভিষেক।সেখানে তিনি জানান,”আমি যা বলার গত বছরের নভেম্বরে বলেছি, তারপর থেকে প্রায় ৭ মাস অতিক্রান্ত হয়ে গিয়েছে । আমি আজ‌ও আমার অবস্থানে অনড় রয়েছি। আমি প্রকাশ্যে জনসভা থেকে বলেছিলাম যে আমার বিরুদ্ধে কোন কেন্দ্রীয় সংস্থা যদি কোন প্রমাণ আনতে পারে যে আমি কোনোরকম দূর্নীতির সাথে জড়িত, তাহলে আমার পিছনে ইডি, সিবিআই লাগাতে হবে না, আমি নিজে ফাঁসির মঞ্চে মৃত্যুবরণ করতে রাজি আছি। আমি আজ‌ও এক‌ই কথা বলছি যে আমি যে কোনো রকমের তদন্তের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত।”

উল্লেখ্য গত মঙ্গলবারে ইডি তলব করেছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় কে। ওই দিন প্রায় ৯ ঘন্টা ধিরে ইডির সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পর ইডির অফিস থেকে বেরিয়ে সাংবাদিক দের তিনি জানান, “যদি ইডি প্রমাণ করতে পারে যে ১০ পয়সার‌ও লেনদেন হয়েছে তাহলে আপনারা আমাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দিন। আজকে আমি সকালে ১১ টায় এখানে এসেছি আর এখন সন্ধ্যা আটটা বাজে। আমাকে ৯ ঘন্টা ধরে জেরা করা হয়েছে। উনারা নিজেদের কাজ করছেন। আমি এটা সম্মান করি। আমি তাদের সাথে সহযোগীতা করেছি তদন্তে। আমি তাদের সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি। আপনারা সকলেই জানেন যারা ক্যামেরার সামনে হাত বাড়িয়ে পয়সা নিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত এজেন্সি চুপ করে রয়েছে। কারণ তারা একটি বিশেষ রাজনৈতিক দলের সাথে যুক্ত রয়েছেন। তাই যারা বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করছে যে করেই হোক তাদেরকে হ্যারাস করা হচ্ছে । আমি প্রথম থেকেই বলছি আমার বিরুদ্ধে যদি অভিযোগ থাকে সেটা প্রকাশ্যে আনুক। যদি বিজেপি ভেবে থাকে যে বিজেপি অন্যান্য দলের মতো তৃণমূলকে ভয় পাইয়ে রেখে দেবে তাহলে এটা বলে রাখি যে তৃণমূল ভয় পাবে না।”

এরপর প্রথম জেরার পর ৪৮ ঘন্টা পার হওয়ার আগেই আবার ও বুধবার অভিষেক কে জেরা করার জন্য তলব করল ইডি।সূত্র মারফত জানা গিয়েছে ইডির কাছে খবর রয়েছে দুটি সংস্থা রয়েছে যা তৃনমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও তার পরিবারের সাথে সম্পর্কিত।এই টাকার উৎস জানার জন্যই অভিষেক কে দ্বিতীয় বার আবার ও তলব করা হয়েছে এমনটাই জানা যাচ্ছে।এছাড়াও জানা গিয়েছে,এই দুটি সংস্থার ডিরক্টর পদেও রয়েছেন অভিষেকের ই ঘনিষ্ঠ আত্মীয়রা।এই তলবের পরিপ্রেক্ষিতে অভিষেক জানিয়েছেন একদিনের জারি করা নোটিশে তার পক্ষে হাজিরা দেওয়া সম্ভব নয়।তিনি আরও জানিয়েছেন, তদন্তের স্বার্থে সমস্ত জরুরি নথিপত্র তিনি ইমেল করে ইডির দপ্তরে পাঠিয়ে দেবেন।

আরোও পড়ুন :