গরীব নবীনচন্দ্র গৌড়া থেকে KGF সুপারস্টার YASH হয়ে ওঠার গল্প জানেন?

67
- Advertisement -

Image source: google

২০১৮ সালের ২১শে ডিসেম্বর। শাহরুখ খানের ছবি জিরোর সঙ্গে রিলিজ হল কেজিএফ নামের একটি ছবি। দুটো ছবির মধ্যে যে কোন তুলনাই হয়না তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। কিং খানের ছবির বাজেট যেখানে ২০০ কোটি সেখানে কেজিএফের বাজেট ৮০ কোটি। কিন্তু বাজেট, গ্ল্যামার আর স্টারডামকে ছাপিয়ে গিয়ে সেদিন ভাগ্য লেখা হয়ে গেছিল অভিনেতা যশের। কন্নড় সিনেমাকে আন্তর্জাতিক বাজারে পৌঁছে দিতে পেরেছিলেন তিনি এই ছবির মাধ্যমে। জিরো যেখানে ব্যবসা করেছে ১৯১ কোটির সেখানে কেজিএফ ব্যবসা করেছে ২০০ কোটি। এর থেকেই প্রমান হয় আজও দর্শক ভালো গল্পকে অ্যাপ্রিশিয়েট করতে জানে। সারা দেশজুড়ে এখন কয়েক কোটি ভক্ত অভিনেতা যশের। আপনিও ভিডিওটা দেখছেন তার মানে আপনিও নিশ্চয়ই যশের ফ্যান? তাহলে আমরা আজ আপনাকে অভিনেতা যশের সম্পর্কে জানাবো কিছু অজানা তথ্য।

- Advertisement -

কর্ণাটকের ছোট্ট এক গ্রামে যশের জন্ম। তার বাবা পেশায় একজন বাস ড্রাইভার এবং মা গৃহবধূ। ছোটবেলায় স্কুলে একটি নাটকে অভিনয় করার সময় থেকেই যশের এই পেশাকে ভালো লাগতে শুরু করে এবং ক্লাস টুয়েল্ভে এসে সে ঠিক করে নেয় অভিনয়কেই নিজের কেরিয়ার হিসেবে বেছে নেবে।

তবে পথটা এতটাও মসৃণ ছিলনা। সে যখন বেঙ্গালুরুতে আসার কথা বাড়িতে জানায় তখন বাড়ি থেকে সাফ সাফ বলে দেওয়া হয় কোনরকম আর্থিক সাহায্য তাকে করা হবেনা। মাত্র ৩০০ টাকা নিয়ে বেঙ্গালুরুতে আসার পর থিয়েটারে ব্যাক স্টেজে বা এক্সট্রা অ্যাক্টর হিসেবে কাজ করতে শুরু করেন যশ। এরপরে একটি ছবির অ্যাসিস্টেন্ট ডিরেক্টর হিসেবে কাজের সুযোগ পান তবে সেই ছবি মাঝপথেই বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে কোন পারিশ্রমিকও পান নি তিনি। তবে এরপর সুযোগ পান সিরিয়ালে। সেটাই তার প্রথম ক্যামেরার সামনে কাজ। যশের আসল নাম নবীন চন্দ্র গৌড়া, কিন্তু অভিনয় জগতে পা রাখার সময়েই তিনি ছোটবেলার ডাকনাম যশ কে নিজের নাম বানিয়ে নেন।

সিরিয়ালে কাজ করতে করতে সিনেমায় পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করতে শুরু করেন যশ সেরা পার্শ্বচরিত্রে অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন ফিল্মফেয়ার পুরস্কার। তবে তখনও তিনি জানতেন না যে জীবনে কতবড় সারপ্রাইজ তার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে। এরপর ধীরে ধীরে কন্নড়ি ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে শুরু করেন যশ। তারপর তার হাতে আসে কেজিএফ এর অফার। দীর্ঘ চার বছর ধরে তৈরী হয় এই ছবি। বাকিটা তো আমাদের সকলেরই জানা। তবে যশের মহিলা ফ্যানদের জানিয়ে রাখা ভালো, ২০১৬ সালে অভিনেত্রী রাধিকা পন্ডিতের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন যশ। একাধিকবার তারা একসঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছেন এবং ভবিষ্যতেও করবেন বলে জানিয়েছেন। তাদের অন ক্যামেরা কেমিস্ট্রি পছন্দ করে মানুষ।

কেজিএফ এর সাফল্যের পর একাধিকবার বলিউড ছবির অফার ফিরিয়েছেন যশ। তিনি এখন কন্নড় ছবিতে অভিনয় করে কন্নড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বেশি করে এক্সপোজার দিতে চান। এখন তিনি ব্যস্ত কেজিএফ চ্যাপ্টার টু নিয়ে। ইতিমধ্যেই এই ছবির টিজার পোস্টার সবকিছুই ভীষণভাবে হিট। মানুষ হলে এই ছবি দেখার জন্য অপেক্ষা করছে অধীর আগ্রহে। প্রথম চ্যাপ্টারের থেকে দ্বিতীয় চ্যাপ্টার বা শেষ পার্ট কতটা বেশি ব্যবসা করতে পারে এবং দর্শকদের তা কতটা ভালো লাগে তা জানার জন্য উৎসুক সকলেই।

আরোও পড়ুন :