১০১৯ টি অক্ষরের নাম নিয়ে গিনেজ বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড জেমির!

 জেমি
নাম নিয়ে বিভ্রাটের একাধিক ঘটনা শোনা যায় হরদম।একই নাম থেকে শুরু করে নামের দৌলতে বন্ধু মহলে রসিকতার মতো একাধিক ঘটনা ঘটার সাথে প্রায় সকলেই পরিচিত।তবে এমন ঘটনা কি কেউ কখনো শুনেছেন কিছু না করেই শুধুমাত্র বাবা মায়ের দেওয়া নামের জেরেই গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নিজের জায়গা করে নিয়েছেন।এমনই করে দেখিয়েছেন এক মহিলা।

- Advertisement -

বাবা মায়ের দেওয়া নামের জেরে গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নেওয়া কিন্তু মুখের কথা নয় বা এমন সৌভাগ্যও থাকে না সব লোকের।এমনই ঘটনা ঘটেছে আমেরিকার টেক্সাসের বাসিন্দা জেমির সাথে।

১৯৮৪ সালে জেমির জন্মের পরেই তার মা সান্দ্রা উইলিয়ামসের মাথায় খেলেছিল এক দূর্দান্ত বুদ্ধি।আর এই বুদ্ধি বাস্তবায়ন করেছিলেন জেমির মা নিজেই।সন্তানের এমন এক নাম রাখেন যা উচ্চারন করতে গিয়ে দাঁত ভেঙে যাওয়ার অবস্থা।জেমির আসল নাম জেমি নয়,আত্মীয়রা তার দীর্ঘ নাম উচ্চারনের ভয়ে তাকে জেমি নামেই ডাকেন।জেমির এই নাম যেমন দীর্ঘ তেমনই বিদঘুটে।

জেমির আসল নামে রয়েছে মোট ১০১৯ টি অক্ষর।অবাক হলেও এটি সত্যি।জেমির জন্মের শংসাপত্রে রয়েছে এমনই নাম।এই নাম লিখতে গিয়ে বার্থ সার্টিফিকেটের দৈর্ঘ্য হয়ে গিয়েছে লম্বায় ২ ফুট।আর এই নামই ভেঙে দিয়েছে বিশ্বের সমস্ত দীর্ঘ নামের রেকর্ড। এই নাম শুনতে দয়া করে কেউ আগ্রহ প্রকাশ করবেন না, কারন জেমি এই নাম নিয়ে যতই গর্ববোধ করুন,তা লেখা বা বলা সাধারনের পক্ষে খুবই কষ্টসাধ্য।

আরোও পড়ুন :