মাদক খাইয়ে অশ্লীল ছবিতে জোর করে অভিনয় করানো হয়েছিল প্রাক্তন এই বিশ্বসুন্দরীকে! জানুন বিস্তারিত

125
- Advertisement -


ইন্টারনেটের দৌলতে এখন প্রাপ্তবয়স্কদের ছবি বা ‘অ্যাডাল্ট কন্টেন্ট’এর বাড়বাড়ন্ত সারা দেশজুড়ে। সেই সাথে নীল ছবির পসারও বেশ বেড়েছে। তবে ইদানিং ‘সফটপর্ন’ জাতীয় ছবি বর্তমান প্রজন্মের কাছে বেশি গ্রহণযোগ্য। উঠতি মডেলদের অভিনেত্রী হয়ে ওঠার আকাঙ্খাকে কাজে লাগিয়ে এয়াকধিক প্রযোজন সংস্থা নিজেদের স্বার্থসিদ্ধি করে চলেছে। তাদের দিয়ে বিভিন্ন অশ্লীল ছবিতে অভিনয় করে বেশি মুনাফা লুটছে প্রযোজনা সংস্থাগুলি।

- Advertisement -

তবে প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী পরী পাসোয়ান আরো গুরুতর অভিযোগ আনলেন। তিনি জানিয়েছেন অনেক সময় মডেলদের শ্যুটিংএর আগে ঠান্ডা পানীয় খাইয়ে তাতে মাদক মিশিয়ে অজ্ঞান করে দেওয়া হয়। তারা আসলে বুঝতেও পারেনা যে অশ্লীল কোন দৃশ্য শ্যুট করছে তারা। পরে যখন বুঝতে পারে তখন কিছু করার থাকেনা এবং ততক্ষণে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় বা মোটা টাকা এবং ভবিষ্যতে ভালো কাজের লোভ দেখিয়ে তাদের চুপ করানো হয়।


২০১৯ সালে মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগীতার বিজয়ী পরী পাসোয়ান জানিয়েছেন তিনিও একবার একটি প্রযোজনা সংস্থার সাথে কাজ করতে গিয়ে এমন অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছেন। তাকে ঠান্ডা পানীয়ের মধ্যে মাদক মিশিয়ে খাইয়ে অশ্লীল ভিডিও শ্যুট করা হয়। পরে সে বুঝতে পারে যে তার সাথে খুব ভুল কিছু হয়েছে এবং তখনই সে কাছের থানায় প্রযোজনা সংস্থার নামে অভিযোগ জানায়। কিন্তু সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় নেটদুনিয়ায়। তার কিছুদিন আগেই বিয়ে হয়েছিল পরীর। ফলে শ্বশুরবাড়ি থেকেও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনে কিন্তু পরী তাদের জানায় যেই সময় এই শ্যুটিং হয়েছে সেই সময় সে অজ্ঞান ছিল। মুম্বাইয়ে বহু উঠতি মডেলের সাথেই এমন ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন পরী।

আরোও পড়ুন :