“বারবার কানে আসছে যে আমার স্বামী অন্য কোন মহিলার সাথে ঘুরছেন”, স্বামীকে মুক্তি দিতে বিরহের পথ বেছে নিলেন বৈশাখীদেবী

104
- Advertisement -


স্বামীর কাছে ডিভোর্স চেয়েছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় একথা কমবেশি সকলেই জানেন। বৈশাখী দেবী দাবি করেছেন পরকীয়ায় জড়িয়েছেন এবং উক্ত মহিলার সাথে বিদেশেও গেছেন। তাই তিনি চান এবার নতুন করে নিজের জীবন শুরু করুক তার স্বামী এবং তিনি এই সম্পর্কের বাঁধন থেকে তাকে মুক্ত দিতে চান।

- Advertisement -

স্বামী মনোজিতের সম্পর্কে বলতে গিয়ে বৈশাখী দেবী জানিয়েছেন, “বারবার কানে আসছে যে আমার স্বামী অন্য কোন মহিলার সাথে ঘুরছেন। সেটা আমার শুনতে একদমই কদর্য লাগছে । আমার একটা সম্মান রয়েছে। তাই আমি বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন করেছি। আমাদের একটি সন্তান রয়েছে তার পিতা হিসাবে অবশ্যই মনোজিৎ স্বীকৃতি পাবে।”

যদিও এখনও অবধি শোভন বাবু বিশেষ কিছু মন্তব্য করেননি এই বিষয়ে। তবে মনোজিত মণ্ডল জানিয়েছেন তিনি নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কারোর কথা শুনবেননা। তিনি এবং বৈশাখী একসাথে থাকেননা তিনবছর। তারা দুজনেই সম্মতিতে এই সিধান্ত নিয়েছেন। তাহলে এখন নতুন করে এই বিতর্ক তার কাছে অর্থহীন। তবে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন তাঁকে অনেকেই বলে স্বামীকে অন্য মহিলার সাথে দেখেছেন যা তার খারাপ লাগে।

এরপরেই যে প্রশ্নটি স্বাভাবিকভাবে উঠেছে তা হল তাহলে কি শোভনবাবুকে বিয়ে করবেন বৈশাখী দেবী? এর উত্তরে তিনি বলেছেন, “বিয়ে হবে কি না তা সময়ই বলবে। শোভনের সঙ্গে আমার সম্পর্ক স্বপ্নের মতো। একটা সুন্দর স্বপ্ন যেমন হয়, আমার প্রতিটা দিন তেমন কাটে।” কিন্তু এরপর তো চুপ করে বসে নেই রত্না চট্টোপাধ্যায়। তিনি বৈশাখী শোভনের বিয়ের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে বলেন, “আমি ডিভোর্স দিলে তো শোভন চট্টোপাধ্যায়কে বিয়ে করবেন। ওঁদের বিয়ে হবে কিনা তা আমার সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করছে। তিনি (বৈশাখী) যেমন ডিভোর্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিজে নিয়েছেন, তেমনই আমি বিবাহবিচ্ছেদ চাই কি না সেই সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ আমার ব্যক্তিগত। এই জীবনে শোভন চট্টোপাধ্যায় ডিভোর্স পাবেন না। তাই বৈশাখী-শোভনের বিয়ের প্রশ্নই নেই।”

আরোও পড়ুন :