৩ মাসের জেল হতে পারে আম্বানির, ঘোষণা করল শীর্ষ আদালত | কারনটি জানলে চমকে উঠবেন

Image Source : Google

বহু দিনের অপেক্ষার অবসান এবার ঘটল বোধহয়, নিজের প্রাপ্য টাকা পাওয়ার আশায় আদালতে গিয়েছিল সুইডিশ টেলিকম সংস্থা এরিকসন। শীর্ষ আদালতের একাধিক নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও তা অমান্য করে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে বকেয়া সাড়ে পাঁচশো কোটি টাকার দেনা মেটাতে পারেননি অনিল অম্বানী। এবার শীর্ষ আদালতে সেই নির্দেশ অমান্য করার অপরাধে অনিল অম্বানীর গ্রেফতারির দাবিতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল সুইস টেক জায়েন্ট এরিকসন সংস্থা।

- Advertisement -

এবার শীর্ষ আদালত সুপ্রিম কোর্ট সেই মামলার ভিত্তিতেই আদালতে নির্দেশ অমান্য করার দায়ে অনিল অম্বানীকে দোষী সাব্যস্ত করল। আদালত এদিন অনিলকে রীতিমত ভর্ৎসনার সুরেই বলেন যে, আম্বানি যদি আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে এরিকসনের বকেয়া সাড়ে চারশো কোটি টাকা মিটিয়ে না দেন তাহলে তিন মাসের জন্য জেল খাটতে হবে তাঁকে।

বুধবার মামলার শুনানি করার সময়েই সোজাসুজি শীর্ষ আদালত বলে দেয় যে, অনিল অম্বানী শীর্ষ আদালতের নির্দেশকে ইচ্ছাকৃত অমান্য করেছেন। আদালতের নির্দেশ অমান্য করার দায়ে অনিলকে এক কোটি টাকা জরিমানাও ঘোষণা করে শীর্ষ আদালত। এরিকসন অভিযোগ করেছেন যে, রিলায়েন্স কমিউনিকেশন রাফালে বিনিয়োগ করতে পারছেন, কিন্তু বকেয়া টাকা মেটানোর সময় নিজেকে দেউলিয়া বলে ঘোষণা করছেন, এমনটা কেন হবে?

এদিকে, অনিল অম্বানী আদালতকে জানিয়েছেন যে, এরিকসনের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী টাকা দিতে তিনি রীতিমত ব্যর্থ কারণ তার দাদা মুকেশ অম্বানীর সাথে তাঁর চুক্তি ব্যর্থ হয়েছে। আপাতত শীর্ষ আদালত আম্বানিকে জানিয়ে দিয়েছে যে, যদি সে ১২ শতাংশ সুদ-সহ এই টাকা ফেরত না দেয়, তাহলে তাঁকে জেল খাটতে হবে।

আরোও পড়ুন :